আপনি একটি পুরানো ব্রাউজার সংস্করণ ব্যবহার করা হয়। সেরা MSN অভিজ্ঞতার জন্য দয়া করে একটি সমর্থিত সংস্করণ সেরা MSN অভিজ্ঞতার জন্য ব্যবহার করুন।

মহিলাদের এই রোগগুলি সন্তানধারণের পথে বড় বাধা! জানালেন বিশেষজ্ঞ

এই সময় লোগো এই সময় 27-05-22

Women’s Reproductive Health: মহিলাদের মধ্যে নানা কারণে গর্ভধারণে সমস্যা দেখা দিতে পারে। এক্ষেত্রে লাইফস্টাইলের ভুলভ্রান্তি অবশ্যই একটি কারণ। তবে এছাড়াও ডায়াবিটিস (Diabetes), থাইরয়েড (Thyroid), ওজন বেশি থাকা (Obesity), অ্যানিমিয়া (Anemia), পিসিওএস (PCOS) ইত্যাদি রোগের থেকেও সমস্যা হতে পারে।

Women’s Health: মহিলাদের এই রোগগুলি সন্তানধারণের পথে বড় বাধা! জানালেন বিশেষজ্ঞ © এই সময় এর দ্বারা সরবরাহকৃত Women’s Health: মহিলাদের এই রোগগুলি সন্তানধারণের পথে বড় বাধা! জানালেন বিশেষজ্ঞ

পরামর্শে ডা: ক্ষিতিজ মুর্দিয়া, সিইও অ্যান্ড কো ফাউন্ডার, ইন্দিরা আইভিএফ

বদলে গিয়েছে জীবনযাপন। এখন মানুষ একটু আলাদাভাবে বাঁচার চেষ্টা করেন। বিশেষত, আধুনিক শহরে জীবনযাপন বেশ খারাপ। এই কারণে মানুষের মধ্যে কিছু রোগের সমস্যা অনেকগুণ বেড়েছ। মুশকিল হল এই রোগগুলির ক্ষেত্রে ঠিক সময়ে ব্যবস্থা না নিতে পারলে শরীরের অনেক অঙ্গ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। বিশেষত মহিলাদের ক্ষেত্রেই এমন সমস্যা বেশি মাত্রায় দেখা যায়।

এবার মহিলাদের জীবনে ফার্টিলিটির এক বিশেষ ভূমিকা রয়েছে। এই মানুষগুলির মধ্যেই জন্ম নেয় নতুন প্রাণ। তাই তাঁদের ফার্টিলিটি (Fertility) সবসময় ভালো থাকতে হয়। তবে দেখা গিয়েছে যে বহু ক্ষেত্রেই এই মানুষগুলির ফার্টিলিটি বা প্রজনন ক্ষমতা অনেকটা কমে যায়। এর পিছনে অনেক কারণ থাকতে পারে। তবে বেশিরভাগ সময়ই দেখা যায় যে বিভিন্ন রোগের কারণেই এই সমস্যা বেশি করে দেখা দিচ্ছে। তাই সতর্ক হয়ে যাওয়া ছাড়া অন্য কোনও গতি আপাতত নেই।

কিন্তু এরপরও বহু মহিলা নিজের স্বাস্থ্য সম্পর্কে সচেতন থাকেন না। এই কারণে তাঁদের শরীরে দেখা দিতে থাকে নানা সমস্যা। এই অবস্থায় সতর্ক থাকাটাই হল মূল লক্ষ্য। তবেই ভালো থাকতে পারবেন। কারণ সতর্ক থেকে এই রোগগুলির চিকিৎসা করা সম্ভব হলেই সন্তানধারণে কোনও সমস্যা হবে না।

এবার চিকিৎসা বিজ্ঞান এতটা এগিয়ে যাওয়ার পর বন্ধ্যাত্ব (Infertility) চিকিৎসায় এসেছে আমূল বদল। তবে সেই দিকে তাকিয়ে থাকা কোনও মতেই ঠিক হবে না। বরং সহজ উপায়ে এই রোগগুলিকে নিয়ন্ত্রণে এনেই সমস্যাকে দূর করে দিতে পারবেন। তাই চিন্তার কোনও কারণ নেই। এবার আন্তর্জাতিক নারী স্বাস্থ্য দিবসের (International Women’s Health Day) প্রাক্কালে এই রোগগুলি সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক-

​ডায়াবিটিস

​ডায়াবিটিস © এই সময় এর দ্বারা সরবরাহকৃত ​ডায়াবিটিস

ডায়াবিটিস

(Diabetes) একটি জটিল রোগ। অসংখ্য মানুষ এই রোগে আক্রান্ত। এবার টাইপ ১ ডায়াবিটিস থাকলে পিরিয়ডস শুরু হতে দেরি হয় এবং দ্রুত হয়ে যায় মেনোপজ। এক্ষেত্রে পিরিয়ডস হতে পারে অনিয়মিত। এমনকী ওভারি থেকে পরিপূর্ণ ডিম্বাণুও বেরতে চায় না। এমনকী প্রেগন্যান্ট হওয়ার ক্ষেত্রেও দেখা দিতে পারে সমস্যা। তাই সতর্ক হয়ে যান।

অপরদিকে টইপ ২ ডায়াবিটিসের ক্ষেত্রে ইনসুলিন রেজিস্টেন্স হয়। এই ধরনের ডায়াবিটিসের ক্ষেত্রেও পিরিয়ডস নিয়মিত হয় না। এই কারণে কনসিভ (Conceive) করতে সমস্যা হতে পারে।

পলিসিস্টিক ওভারিয়ান সিনড্রোম

পলিসিস্টিক ওভারিয়ান সিনড্রোম © এই সময় এর দ্বারা সরবরাহকৃত পলিসিস্টিক ওভারিয়ান সিনড্রোম

গর্ভবতী হওয়ার বয়সে থাকা ৫ থেকে ১৩ শতাংশ রোগীর ক্ষেত্রে এই পলিসিস্টিক ওভারিয়ান সিনড্রোম (PCOS) দেখা যায়। এক্ষত্রে ডায়াবিটিসের সঙ্গে এই রোগ জড়িয়ে থাকতে পারে। তাই ইনসুলিন রেজিস্টেন্স বা শরীরে টেস্টোস্টেরন হরমোন বেশি থাকে। এক্ষেত্রে ওভারি থেকে সুস্থ ডিম্বাণু বেরয় না। ফলে গর্ভধারণ করতে সমস্যা হয়।

​ওবেসিটি

​ওবেসিটি © এই সময় এর দ্বারা সরবরাহকৃত ​ওবেসিটি

ওজন বেশি থাকা

বা ওবেসিটি (Obesity) হল একটি বড় সমস্যা। এক্ষেত্রে দেখা গিয়েছে যে ওজন বেশি থাকলে পিরিয়ডসে সমস্যা হয়। দেখা গিয়েছে ওজন বেশি থাকা মহিলাদের মধ্যে বন্ধ্যাত্বের সমস্যাও কয়েকগুণ বেশি। এক্ষেত্রে ওভারিয়ান ফলিকিউলার গ্রোথ কম হওয়া, এমব্রোয়ো ডেভেলপমেন্ট ঠিকমতো না হওয়া ইত্যাদি বিষয়গুলি সমস্যা তৈরি করে। এছাড়া এই মানুষগুলির মধ্যে হাই রিস্ক প্রেগন্যান্সি বেশি দেখা যায়। এছাড়া এনাদের মধ্যে গর্ভপাতও (Miscarriage) বেশি।

​অ্যানিমিয়া

​অ্যানিমিয়া © এই সময় এর দ্বারা সরবরাহকৃত ​অ্যানিমিয়া

অ্যানিমিয়া (Anemia) এক জটিল রোগ। বহু মানুষ এই রোগে আক্রান্ত। এক্ষেত্রে মহিলাদের এই অসুখ থাকলে সমস্যার আশঙ্কা থাকে খুব বেশি। এক্ষেত্রে শরীরে আয়রনের ঘাটতির কারণে হিমোগ্লোবিন কম তৈরি হয়। এই কারণে জরায়ু সহ শরীরের বিশেষকিছু অংশে পর্যাপ্ত অক্সিজেন পৌঁছাতে পারে না। এর ফলে ডিম্বাণুর স্বাস্থ্য ঠিক থাকে না। এমনকী ডিম্বাশয় ও জরায়ুর অবস্থাও এই সময় খারাপ হয়ে যায়। এছাড়া প্রেগনেন্ট অবস্থায় অ্যানিমিয়া থাকলে বাচ্চার সমস্যার আশঙ্কা থাকে কয়েকগুণ বেশি। এমনকী প্রি ম্যাচুওর ডেলিভারি হওয়ার আশঙ্কাও থাকে।

​থাইরয়েড

​থাইরয়েড © এই সময় এর দ্বারা সরবরাহকৃত ​থাইরয়েড

গর্ভধারণের ইচ্ছা থাকলে আপনার শরীরে থাইরয়েড (Thyroid) হরমোনের উপস্থিতি নিয়ে অবশ্যই একটু ভাবতে হবে। এক্ষেত্রে হাইপোথাইরয়েডিজম থাকলে সমস্যা বেশি। থাইরয়েড হরমোন কম থাকলে ডিম্বাশয় থেকে ডিম্বাণু ঠিকমতো বেরতে চায় না। এমনকী বাচ্চা সময়ের আগেই জন্মাতে পারে। এমনকী মিসকারেজ হওয়ার আশঙ্কাও থাকে।

তাই এই প্রতিটি রোগেরই ঠিক চিকিৎসা করা উচিত। তবেই প্রেগন্যান্সি আসবে।

বিদ্র: প্রতিবেদনটি সচেতনতার উদ্দেশ্যে লেখা হয়েছে। কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

আরও পড়ুন এই সময়

image beaconimage beaconimage beacon